মেনু নির্বাচন করুন

মানচিত্রে ইউনিয়ন

কাপাকুজ্যা ইউনিয়নের  নাম করন-উত্তরে বাঘাইছড়ি উপজেলার পাবলাখালী বণ্য প্রাণী অভয়আশ্রয় কেন্দ্রেরের দক্ষিণের পাবলাখালী ছড়ার মুখ হইতে কালাপাকুজ্যা নামক ছড়ার উতপত্তি,এবং এই ছড়া বর্তমান কালাপাকুজ্যা ইউনিয়নের মধ্যে স্থল  দিয়ে কাচালং নদীতে সংযোগ হয়েছে, এই ছড়ার নাম অনুসারে অত্র ইউনিয়নের নাম করণ করা হয়‍ কালাপাকুজ্যা।

কালাপাকুজ্যা ইউনিয়ের ইতিহাস-১৯৮৩-৮৪ ইং সনে প্রস্তাবিত বনমুক্ত এলাকায় ১ম পর্যায়ের অপুর্নবাসিত ব্যক্তিদের পূর্নবাসনের জন্য মাননীয় জেলা প্রসাশক জনাব শফিকুল ইসলাম সাহেব স্বারক নং x11 for/49/83/385 তারিখ ঢাকা ০৬ ই জুন ১৯৮৪ ইং মুলে৩০০০( তিন হাজার) একর জমি কাচালং বন বিভাগ হইতে বন মুক্ত করেন এবং বনমুক্ত এলাকাকেনিয়ে নিম্ম চৌহদ্দী ভূক্ত অঞ্চলকে

উত্তরে- ফরেষ্ট রির্জাব ও খেদার মারা মৌজা।

দক্ষিনে-কাচালং নদী ও মাইনী খাল

পূর্বে-  ৩৮৫নং আমতলী মৌজা।

পশ্চিমে-মাইনীখাল/আটারকছড়া ইউ,পি।

৩০০০হাজার একর জমি নিয়ে মৌজা ঘোষনা করেন। যাহা ৩৯০নং কালাপাকুজ্যা মৌজা নামে প্রকাশিত। ১৯৮৭ইং সনের ১৮/১০/১৯৮৭ইং তারিখে জনাব ডা:আ:সাত্তার সাহেব কালাপাকুজ্যা এলাকাটি একটি আলাদা ইউনিয়ন করার আবেদন করলে উপজলা পরিষদ লংগদু ৩০/১২/১৯৮৭ ইং তারিখে উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে-কালাপাকুজ্যা ইউনিয়ন নামে একটি আলাদা ইউনিয়ন করার প্রস্তাব সভায় সর্ব সম্মতি ক্রমে সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। উক্ত কালাপাকুজ্যা নতুন বসবাসরত ১৩ জনপূর্নবাসন গ্রুপ লিডার গণের প্রচেষ্টায় ১১টি গ্রাম সৃষ্টি হয়। এবং ডা:আ:সাত্তার ও চান মিয়ার যৌথ স্বাক্ষরে ২১/০১/১৯৮৮ইং তারিখে মহামান্য রাষ্টপতি মহোদয় বরাবরে এক খানা আবেদন পত্র দাখিল করেন কালাপাকুজ্যা এলাকাকে একটি আলাদা ইউনিয়ন করার জন্য সাথে মাননীয় সচিব স্থানীয় সরকার পল্লীউন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয় এবং জেলা প্রসাশক রাঙ্গামাটি বরাবরে আবেদন করেন। ফলে সরকার স্বারকনং শা-৭/ইউপসম-১/৮৮/৭৫৩/১(৪)তারিখ ১৬/০৮/৯৫বাং৩০/১১/৮৮ইং  ১৯৮৩ইং সনের ইউনিয়ন পরিষদ ঘোষনা বিধির ৬নং ধারা মোতাবেক ইউনিয়ন পরিষদ অনুমোদন প্রদান করেন। কানিজ ফাতেমা  সিনিয়র সহকারী সচিব স্থানীয় সরকার পল্লীউন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয় এবং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব আ:রশিদ সরকার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মহোদয় জনাব সোলায়মান সাহেব আমিন কানুন গো কে সাথে নিয়ে রশিদপুর,মামুনপুর,দক্ষনি রহমতপুর,রাজাপুর গ্রাম নিয়ে ১নং ওয়ার্ড সিমানা নির্ধারন করেন ও ইসলামপুর,ছালামপুর,হাসানপুর গ্রাম নিয়ে ২নং ওয়ার্ড এবং মুসলিমপুর,উত্তররহমতপুর,হোসেনপুর,রসুলপুর গ্রাম নিয়ে ৩নং ওয়ার্ড নির্ধারন করেন।  এই তিন ওয়ার্ডের মধ্যেস্থলে তিনটি ছড়া যাহা ক্রমে মনিছড়া,মুক্তাছড়া,পান্নাছড়া,নামে ওয়ার্ড গুলোকে বিভক্ত করা হয়। নব গঠিত ইউনিয়নটি নির্বাচন প্রকৃয়া সৃষ্টির পূর্বেই ১৯৮৯ইং সনে আততায়ীর গুলিতে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব আ: রশিদ সরকার শাহাদাত বরণ করেন। ফলে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান হিসাবে বগাচতর ইউ,পি চেয়ারম্যান জনাব আ: মতিন সাহেব দায়ীত্ব পালন করেন। নবগঠিত কালাপাকুজ্যা  ইউ,পি

নির্বাচনের পূর্বে অন্তবর্তি কালিন চেয়ারম্যান জনাব আ: সাত্তার গ্রুপ লিডারকে দায়ীত্ব দেন এবং ১৯৯০ ইং সনের শেষের দিকে নবগঠিত কালাপাকুজ্যা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে জনাব আ:রহমান হাওলাদার সাহেব প্রথম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

তথ্যসূত্র-জনাব ডা:আ:সাত্তার